দেখিয়ে দাও তোমার প্রতিভা  করোনা চ্যালেঞ্জ: "প্রতিভার খোজে"

সম্ভবত প্লে গ্রুপ থেকে এমএসসি/পিএইচডি পর্যন্ত সকল শ্রেণির মধ্যে একমাত্র এসএসসি’র শিক্ষার্থীরা সম্পূর্ন ফ্রি, তার মানে কোন আনুষ্ঠানিক পড়াশোনা নাই তাদের। এসএসসি ফাইনাল পরীক্ষায় অবতীর্ণ হওয়ার পর থেকে পরিপূর্ন অবসর এবং সেই সাথে করোনা কালীন আনলিমিটেড কোয়ারেন্টাইন সময়। “করোনা চ্যালেঞ্জ: প্রতিভার খোঁজে”, তাদের এই সময়কে উদ্ভাবনী ও সৃষ্টিশীল কাজে ব্যস্ত রাখার মধ্যদিয়ে নিজেদের প্রতিভার বিকাশ ও কোয়ারেন্টাইনে নিজেদের শারিরিক ইম্মিউন সিস্টেম সবল রাখাই মূল উদ্দেশ্য।

সৃষ্টিকর্তা প্রত্যেকটি মানুষকে গুনাবলী দিয়ে পৃথিবীতে পাঠিয়েছেন আমাদের প্রয়োজন সেই বিশেষ গুনাবলীর লালন, সঠিক সময়ে এর প্রকাশ, আবিস্কার এবং বিকাশ অনেক ক্ষেত্রেই সময় সুযোগ এবং যথাযথ মাধ্যমের অভাবে অনেক সম্ভাবনাই নিরবে ঝড়ে যায়। কিন্তু আমরা যদি সেই প্রতিভাগুলোর সঠিক মূল্যায়ন পরিষ্ফুটন এবং সঠিক মাধ্যমে তুলে ধরতে পারি তবে অবশ্যই ব্যক্তি তথা প্রতিষ্ঠান, সমাজ তথা রাষ্ট্রের জন্যও বিশেষ সম্পদ হিসেবে গন্য হবে।

মূলত এই বিশেষ উদ্দেশ্যকে সামনে রেখেই একটি বিশেষ “করোনা চ্যালেঞ্জ: প্রতিভার খোঁজে” প্রকল্প হাতে নিয়েছে ড্যাফোডিল পলিটেকনিক ইন্সিটিউট। আমরা লক্ষ্য করেছি, শুধুমাত্র পড়াশুনা এবং পারিপার্শ্বিক অন্যান্য কারনে বেশীর ভাগ ছেলে মেয়েরা নিজেদের সুপ্ত প্রতিভাগুলোর বিকাশে তেমন মনোযোগী হয় না বা প্রকাশ করতে চায় না কভিড-১৯ দূর্যোগের এই সময়ে যখন দেশ জুড়ে চলছে লকডাউন হাতে রয়েছে অনেকটা সময় তখন কেন না আমরা এই সময়টাকে নিজেদের প্রতিভা বিকাশ এবং মেধা ও মননশীলতার বিকাশে ব্যয় করি?

বিশেষ করে যারা সবে মাত্র এসএসসি পরীক্ষায় অংশগ্রহন করেছো তাদের জন্য রয়েছে বেশ খানিকটা অবসর সময় তেমন একটা পড়াশুনা নেই, কোন টেনশন নেই শুধু আছে ফলাফলের অপেক্ষা। এই সময়টা যদি আমরা নিজেদের কর্মদক্ষতা বা প্রতিভা বিকাশে ব্যয় করি তাহলে অনায়াসেই নিজেকে অন্যদের তুলনায় এগিয়ে নিয়ে যেতে পারি অনেকটুকু। কারণ বাধা যতোই আসুক থেমে থাকবেনা আমাদের জীবন বা কার্যক্রম, আর এই করোনার মতো চ্যালেঞ্জকে মোকাবিলায় নিজেকে প্রস্তুত করতে হবে। আরো ভিন্ন প্রেক্ষাপটে সামনের পৃথিবী হবে আরো বিশাল আর তাতে নিজেকে খাপ খাওয়াতে হলে নিজেকে আগে জানতে হবে। নিজের প্রতিভার বিকাশ ঘটাতে হবে। আর আমাদের “প্রতিভার খোঁজে” তেমনি একটা প্রকল্প।

আমাদের লক্ষ্য প্রতিভার আবিষ্কার এবং প্রতিভার বিকাশে তোমাদের সহযোগিতা করা। তোমাকে দেখে শিখবে অনেকে। অনুপ্রানিত হবে আরো অনেক সম্ভাবনাময় প্রতিভা।

দেখিয়ে দাও তোমার প্রতিভা  চ্যালেঞ্জ সমূহ

ফটোগ্রাফি চ্যালেঞ্জ

তোমাদের মধ্যে অনেকেই আছো আজকাল মোবাইল ফোন দিয়ে চমৎকার ছবি তুলে থাকো।করোনা লকডাউনে বাড়িতে বসেই তুলে ফেলো সেরা কিছু ছবি, আর পাঠিয়ে দাও করোনা চ্যালেঞ্জে ।

1

Music চ্যালেঞ্জ

কেউ ভালো গান করতে পারো, নিজেই গান লিখতে,সুর করতে পারো, অথবা যেকোনো বাদ্যযন্ত্র বাজাতে পারো, তবে দ্যারই কেন ? রেকর্ড করো ১ মিনিটের ভিডিও আর পাঠিয়ে দাও করোনা চ্যালেঞ্জে।

3

গ্রাফিক্স ডিজাইন এন্ড কার্টুন মেকিং

কেউ গ্রাফিক্স ডিজাইন করতে পারো অথবা কার্টুন মেকিং করতে পারো তবে দ্যারই কেন ? এখনই পাঠিয়ে দাও তোমার ডিজাইন অথবা কার্টুন করোনা চ্যালেঞ্জে।

5

রচনা চ্যালেঞ্জ

লিখে পাঠাও করোনা ভাইরাসের এই লকডাউনে ঘরে বসে ব্যস্ত সময় পার করছো এমন কিছু কিছু অভিনব আইডিয়া লিখে পাঠাও করোনা চ্যালেঞ্জে ।

2

ক্রিয়েটিভ ভিডিও অন COVID19

করোনা মোকাবেলায় ও সচেতনতা বৃদ্ধিতে বাড়িতে বসেই তৈরি করো অভিনব চমৎকার ভিডিও আর পাঠিয়ে দাও করোনা চ্যালেঞ্জে প্রতিভা অন্বেষণ- এ, আমরা তুলে ধরবো সারা বিশ্বের কাছে।

4

তোমাদের এই প্রতিভাগুলোকে আমরা তুলে ধরবো সবার মাঝে।

অংশগ্রহণের সময়সীমা

April 27, 2020

রচনা

১৭ ই মে থেকে ২৪ শে মে , ২০২০

March 23, 2020

ফটোগ্রাফি

১৭ ই মে থেকে ২৪ শে মে , ২০২০

March 23, 2020

গ্রাফিক্স ডিজাইন এন্ড কার্টুন মেকিং

১৭ ই মে থেকে ২৪ শে মে , ২০২০

March 23, 2020

গান ও অন্যান্য

১৭ ই মে থেকে ২৪ শে মে , ২০২০

March 23, 2020

ক্রিয়েটিভ ভিডিও

১৭ ই মে থেকে ২৪ শে মে , ২০২০

ফলাফল

পর্যায়ক্রমে বিচারকদের মনোনয়নে সকল বিষয় গুলো তুলে ধরা হবে ড্যাফোডিল পলিটেকনিক অফিসিয়াল পেইজের মাধ্যমে প্রকাশ করা হবে।  

প্রাইজ

প্রথম ১০ জনের জন্য রয়েছে  ক্যাশ ইনসেন্টিভ।

HURRY UP! দেখিয়ে দাও তোমার প্রতিভা!